পবিত্র শবে বরাত আজ

নিউজ নিউজ

ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:০৫ পূর্বাহ্ন, মার্চ ২৯, ২০২১

আজ পবিত্র শবে বরাত। ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের জন্য কাঙ্ক্ষিত মহিমাময় রজনী পবিত্র লাইলাতুল বরাত বা শবে বরাত। মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের মহিমান্বিত এ রাতে মুসলমানরা পাপ থেকে ক্ষমা প্রার্থনা করে নিষ্কৃতি লাভের অপার সৌভাগ্য লাভ করেন। এই রাতে আল্লাহতায়ালা বান্দাদের জন্য তাঁর অশেষ রহমতের দরজা খুলে দেন, সে সঙ্গে আগামী এক বছরের জন্য মানুষের ভাগ্য নির্ধারণ করেন।

সোমবার (২৯ মার্চ) দিবাগত রাতে যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদায় পবিত্র শবে বরাত পালিত হবে।

এই রাতে মহান আল্লাহতায়ালার নূরের জ্যোতি পৃথিবীর নিকট আসমানে প্রকাশ পায়। আর এ সময়ই আল্লাহতায়ালার মহান দরবারে ক্ষমা প্রার্থনার বিশেষ সময়। আল্লাহর নৈকট্য ও সান্নিধ্য লাভের এক দুর্লভ সুযোগ এনে দেয় এই মহিমান্বিত রজনী।

ইসলাম ধর্মে গুরুত্বপূর্ণ চারটি রাতের অন্যতম শবে বরাতের রাত। এ রাতে আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের আশায় তাই নফল নামাজ, কোরআন তিলাওয়াত, জিকির-আজগারের মধ্য দিয়ে ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা ইবাদত-বন্দেগির মধ্য দিয়ে রাত কাটান। সে সঙ্গে এই ভাগ্য রজনী জানান দেয় রমজানের আগমনী বার্তা। এক মাস সিয়াম সাধনার আগে শবে বরাত উপলক্ষে নফল রোজা ও নফল নামাজের মধ্য দিয়ে মূলত মুসল্লিরা রমজানের প্রাক-প্রস্তুতি নেওয়ার সুযোগ পান। শবে বরাতে আরো একটি আমল ধরা হয়, যারা দুনিয়া থেকে চিরবিদায় নিয়ে গেছেন, তাঁদের কবর জিয়ারত। এই রাতে পরম করুণাময়ের আনুকূল্য পেতে বান্দারা সাধ্যমতো দান-খয়রাত করবেন।

শবে বরাতের উৎপত্তি ফারসি শব্দ ‘শব’ থেকে, যার অর্থ রাত এবং ‘বরাত’ অর্থ সৌভাগ্য। হিজরি বর্ষপঞ্জির শাবান মাসের ১৪ তারিখ দিবাগত রাতটি পবিত্র শবে বরাত হিসেবে পালন করা হয়।

মহিমান্বিত এই রাতে ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা পরম করুণাময়ের অনুগ্রহ লাভের আশায় বেশি বেশি নফল নামাজ, কোরআন তিলাওয়াত, জিকিরে মগ্ন থাকবেন। অনেকে রোজা রাখেন, দান-খয়রাত করেন। অতীতের গুনাহের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা এবং ভবিষ্যৎ জীবনের কল্যাণ কামনা করে মোনাজাত করেন।

এ উপলক্ষে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদসহ দেশের বিভিন্ন মসজিদ ও মাদ্রাসায় ওয়াজ মাহফিল, দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে। করোনা মহামারির কারণে গত বছর মসজিদে না গিয়ে মুসল্লিদের ঘরে বসে ইবাদত করার আহ্বান জানিয়েছিল ধর্ম মন্ত্রণালয়। তবে এবার এমন কোনো নির্দেশনা দেওয়া হয়নি।

নিউজ সোর্স: PPBD
ছবি সোর্স: গুগল