ক্ষমতা

প্রকাশিত: ১২:২৫ অপরাহ্ন, অক্টোবর ২২, ২০১৯

ক্ষমতা ( Edit চলমান )
*******
শিশুকালে পাশ ফিরে শোবার থাকেনা ক্ষমতা,
মুতেই শুয়ে থাকতাম, যদি না থাকতো মায়ের মমতা।
পানির গ্লাস ধরতে পারিনা, তাই গ্লাস রাখা হতো সরে,
বাড়ি চিনে ফিরার ছিলনা ক্ষমতা,মা বন্দী রাখতো ঘরে।
ক্রমান্বয়ে বড় হতে থাকি, বাড়তে থাকে দেহের ক্ষমতা,
দেহে বাড়ে শক্তি, সাহস, কেটে যায় শৈশবের জড়তা।
ধরাকে সরা জ্ঞান করি, দাপিয়ে চলি পথ প্রান্তর,
ক্ষমতা আমাকে সাহস জোগায়, লজ্জাহীন হয় অন্তর।
ন্যায় অন্যায় জ্ঞান হারাই,শক্তি আর ক্ষমতার দাপটে
সবুজ সরল অন্তরটা, লোভের আগুনে পুড়ে তামাটে।
ভূলি কৃতজ্ঞতা, ভূলে যাই অতীতের সব অবলম্বন,
ভূলে যাই সৃষ্টিকর্তা, আর ভূলে থাকি আত্মীয় স্বজন।
মত্ত থাকি অর্থ আর সম্পদ অর্জনে,বাড়ে বিত্ত বৈভব
হারিয়ে যাই রঙ্গিন জগতে, অসম্ভবকে করি সম্ভব।
বাড়াবাড়ি এত বেশী হয়, কেঁপে উঠে খোদার আরশ,
অতঃপর আকাশ ভেঙ্গে পড়ি মাটিতে,হারাই খ্যাতি যশ।
বেড়ে চলে সময়, হারাতে থাকি জৌলুস আর ক্ষমতা,
শক্তি কমে শরীরে,মূল্য দেয়না কেউ, দেখায়না মমতা।
যে বাঘের গর্জনে তটস্থ ছিল বন,সে হয় জীর্ণশীর্ণকায়,
মরার পথে বাঁচতে চাই, কিছু করার নাই শুধু হায় হায়।
আবার ফিরে আসা, পানির গ্লাসটি ধরার ক্ষমতা নাই,
সুসময়ের বন্ধু নাই,মা নাই, কাত ফেরানোর কেউ নাই।
আয়ু শেষ,বায়ু নাই, রেখে আসে মাটির তলে অন্ধকারে,
শুরু হতে শেষ সবার জানা,তবু ভয় নাই কারও অন্তরে।

————— রফিক হেলাল
২২/১০/২০১৯


আরও পড়ুন