ঢাকা ০৩:২৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যোগীরাজ্যে সাংবাদিককে নগ্ন করে পুলিশের মার, গায়ে মূত্রত্যাগ

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ০১:০৬:০১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০১৯ ৩০৬ বার পড়া হয়েছে

১২ জুন ২০১৯, বিন্দুবাংলা টিভি .কম, আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

ভারতের উত্তরপ্রদেশের এক সাংবাদিককে ক্যামেরার সামনে প্রায় নগ্ন করে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল পুলিশের বিরুদ্ধে। সাংবাদিকের গায়ে মূত্রত্যাগও করা হয় বলে অভিযোগ। ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, বারবার তাকে মারধরের কারণ জিজ্ঞাসা করছেন আক্রান্ত সাংবাদিক।

স্টেশন হাউস অফিসার (এসএইচও) রাকেশ কুমারের নেতৃত্বে সাংবাদিককে নিগ্রহ করার অভিযোগ উঠেছে রেল পুলিশের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে। পরে সংবাদসংস্থা অঘও-কে নিউজ চ্যানেলের ওই সাংবাদিক জানিয়েছেন, ‘তারা সাদা পোশাকে ছিল। একজন আমার ক্যামেরায় আঘাত করায় সেটি পড়ে যায়। আমি সেটি তুলে নিলে ওরা আমায় মারতে শুরু করে। নিগ্রহ করে। আমাকে লক-আপে আটকে রাখা হয়। জামাকাপড় খুলে দেওয়া হয়। আমার গায়ে প্রস্রাবও করে তারা।

মঙ্গলবার রাতে ধীমানপুরায় একটি মালগাড়ির লাইনচ্যুত হওয়ার ঘটনার খবর করতে গিয়েছিলেন ওই সাংবাদিক। সারা রাত গারদে আটক করে রাখা হয় ওই সাংবাদিককে। ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যাওয়ার জেরে বুধবার তিনি ছাড়া পান। জিআরপির অভিযুক্ত স্টেশন হাউস অফিসার (এসএইচও) রাকেশ কুমার ও তার সঙ্গী কনস্টেবল সঞ্জয় পওয়ারকে সাসপেন্ড করেন উত্তরপ্রদেশ পুলিশের ডিজি ও পি সিংহ।

টুইটারে ভাইরাল হওয়া অন্যান্য কয়েকটি ভিডিয়োতেও দেখা গিয়েছে, সাংবাদিকের আকুতি সত্ত্বেও চেয়ারে চুপ করে বসে রয়েছেন অভিযুক্ত এসএইচও। রেলের বিরুদ্ধে নেতিবাচক খবর করার জন্য তার এই হাল করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন সাংবাদিক।

যোগী আদিত্যনাথের বিরুদ্ধে ‘আপত্তিকরথ পোস্টের জন্য সাংবাদিককে গ্রেফতার করার ঘটনায় মঙ্গলবারই সুপ্রিম কোর্টের ধমক খেতে হয়েছে উত্তরপ্রদেশ সরকারকে। তার কয়েক ঘণ্টা কাটতে না-কাটতেই নির্মমভাবে সাংবাদিক নিগ্রহের ঘটনা ঘটল যোগীরাজ্যে। সূত্র: টিওআই।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

ট্যাগস :

যোগীরাজ্যে সাংবাদিককে নগ্ন করে পুলিশের মার, গায়ে মূত্রত্যাগ

আপডেট সময় : ০১:০৬:০১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০১৯

১২ জুন ২০১৯, বিন্দুবাংলা টিভি .কম, আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

ভারতের উত্তরপ্রদেশের এক সাংবাদিককে ক্যামেরার সামনে প্রায় নগ্ন করে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল পুলিশের বিরুদ্ধে। সাংবাদিকের গায়ে মূত্রত্যাগও করা হয় বলে অভিযোগ। ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, বারবার তাকে মারধরের কারণ জিজ্ঞাসা করছেন আক্রান্ত সাংবাদিক।

স্টেশন হাউস অফিসার (এসএইচও) রাকেশ কুমারের নেতৃত্বে সাংবাদিককে নিগ্রহ করার অভিযোগ উঠেছে রেল পুলিশের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে। পরে সংবাদসংস্থা অঘও-কে নিউজ চ্যানেলের ওই সাংবাদিক জানিয়েছেন, ‘তারা সাদা পোশাকে ছিল। একজন আমার ক্যামেরায় আঘাত করায় সেটি পড়ে যায়। আমি সেটি তুলে নিলে ওরা আমায় মারতে শুরু করে। নিগ্রহ করে। আমাকে লক-আপে আটকে রাখা হয়। জামাকাপড় খুলে দেওয়া হয়। আমার গায়ে প্রস্রাবও করে তারা।

মঙ্গলবার রাতে ধীমানপুরায় একটি মালগাড়ির লাইনচ্যুত হওয়ার ঘটনার খবর করতে গিয়েছিলেন ওই সাংবাদিক। সারা রাত গারদে আটক করে রাখা হয় ওই সাংবাদিককে। ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যাওয়ার জেরে বুধবার তিনি ছাড়া পান। জিআরপির অভিযুক্ত স্টেশন হাউস অফিসার (এসএইচও) রাকেশ কুমার ও তার সঙ্গী কনস্টেবল সঞ্জয় পওয়ারকে সাসপেন্ড করেন উত্তরপ্রদেশ পুলিশের ডিজি ও পি সিংহ।

টুইটারে ভাইরাল হওয়া অন্যান্য কয়েকটি ভিডিয়োতেও দেখা গিয়েছে, সাংবাদিকের আকুতি সত্ত্বেও চেয়ারে চুপ করে বসে রয়েছেন অভিযুক্ত এসএইচও। রেলের বিরুদ্ধে নেতিবাচক খবর করার জন্য তার এই হাল করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন সাংবাদিক।

যোগী আদিত্যনাথের বিরুদ্ধে ‘আপত্তিকরথ পোস্টের জন্য সাংবাদিককে গ্রেফতার করার ঘটনায় মঙ্গলবারই সুপ্রিম কোর্টের ধমক খেতে হয়েছে উত্তরপ্রদেশ সরকারকে। তার কয়েক ঘণ্টা কাটতে না-কাটতেই নির্মমভাবে সাংবাদিক নিগ্রহের ঘটনা ঘটল যোগীরাজ্যে। সূত্র: টিওআই।