ঢাকা ০৪:১২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হোমনায় চিরকুট লিখে সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকি

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ০৫:৫৭:৩৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২০ ১৭১ বার পড়া হয়েছে

২৯ জানুয়ারি ২০২০ , আজকের মেঘনা ডটকম,     হোমনা  সংবাদদাতা :
কুমিল্লার হোমনায় ‘বিপদ সংকেত’ চিরকুট লিখে সাংবাদিক মোর্শেদুল ইসলাম শাজুকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শাজু একটি জাতীয় দৈনিক ও স্থানীয় পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে কর্মরত রয়েছেন। এই ঘটনায় সোমবার থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন তিনি।

সাংবাদিক শাজু জানান, হোমনা পৌরসভার পোস্ট অফিস সংলগ্ন সাহা মার্কেটে ঘাস ফড়িং নামে তার একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও অফিস রয়েছে।

রবিবার দিবাগত রাতে তিনি প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ করে বাসায় চলে যান। এরপর সোমবার দুপুর ১২টার দিকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুললে তিনি মেঝেতে একটি চিরকুট দেখতে পান। এরপর চিরকুট খুলে দেখেন সেখানে লেখা রয়েছে ‘বিপদ সংকেত’।

পরে এই ঘটনায় থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন তিনি।

তিনি আরও জানান, আমার সঙ্গে কারো কোনো ব্যক্তিগত বিরোধ নেই। হয়তো কোন সংবাদ প্রকাশের জের ধরে অজ্ঞাত দুষ্কৃতিকারীরা হুমকিস্বরূপ এই চিরকুটটি দোকানে রেখে গেছে।

হোমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.আবুল কায়েস আকন্দ বলেন, এই ঘটনায় সাংবাদিক শাজু একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। আমরা তার জিডিটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

ট্যাগস :

হোমনায় চিরকুট লিখে সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকি

আপডেট সময় : ০৫:৫৭:৩৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২০

২৯ জানুয়ারি ২০২০ , আজকের মেঘনা ডটকম,     হোমনা  সংবাদদাতা :
কুমিল্লার হোমনায় ‘বিপদ সংকেত’ চিরকুট লিখে সাংবাদিক মোর্শেদুল ইসলাম শাজুকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শাজু একটি জাতীয় দৈনিক ও স্থানীয় পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে কর্মরত রয়েছেন। এই ঘটনায় সোমবার থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন তিনি।

সাংবাদিক শাজু জানান, হোমনা পৌরসভার পোস্ট অফিস সংলগ্ন সাহা মার্কেটে ঘাস ফড়িং নামে তার একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও অফিস রয়েছে।

রবিবার দিবাগত রাতে তিনি প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ করে বাসায় চলে যান। এরপর সোমবার দুপুর ১২টার দিকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুললে তিনি মেঝেতে একটি চিরকুট দেখতে পান। এরপর চিরকুট খুলে দেখেন সেখানে লেখা রয়েছে ‘বিপদ সংকেত’।

পরে এই ঘটনায় থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন তিনি।

তিনি আরও জানান, আমার সঙ্গে কারো কোনো ব্যক্তিগত বিরোধ নেই। হয়তো কোন সংবাদ প্রকাশের জের ধরে অজ্ঞাত দুষ্কৃতিকারীরা হুমকিস্বরূপ এই চিরকুটটি দোকানে রেখে গেছে।

হোমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.আবুল কায়েস আকন্দ বলেন, এই ঘটনায় সাংবাদিক শাজু একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। আমরা তার জিডিটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।