ঢাকা ০৪:৪৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুমিল্লায় টাকা না পেয়ে ছাগল নিয়ে গেলেন ২ এএসআই!

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ০৪:৫৮:৪৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ৩২৫ বার পড়া হয়েছে

৩ জানুয়ারি ২০২০, আজকের মেঘনা ডটকম,
ডেস্ক রিপোর্ট ● কুমিল্লায় এক ব্যবসায়ীকে হয়রানির অ’ভিযোগে দুই এএসআইকে ক্লোজড করা হয়েছে। এ ঘটনায় বরুড়া উপজে’লা জুড়ে বেশ আলোচনা সমালোচনা শুরু হয়েছে।

বরুড়া উপজে’লার শাকপুর গ্রামের মৃ’ত আলী মিয়ার ছেলে ব্যবসায়ী ফরিদ আহমেদকে গাঁ’জা দিয়ে ফাঁ’সানোর অ’ভিযোগে বরুড়া থা’না পু’লিশের এএসআই ইব্রাহীম খলীল ও ইসমাইল হোসেনকে রোববার রাতে ক্লোজড করা হয়।

ওই ব্যবসায়ীর অ’ভিযোগ, গত ২০ জানুয়ারি রাত ৯টার দিকে এএসআই ইব্রাহীম খলীল ও ইসমাইল হোসেন ফরিদকে গাঁ’জা দিয়ে ফাঁ’সান। এ সময় শিপন নামের এক কিশোরকেও আ’টক করা হয়।

এরপর রাতেই দালালের মাধ্যমে ফরিদকে ১ লাখ টাকা এবং পরদিন কিশোরকে ৩০ হাজার টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেয়া হয়। পরে আরো ৩০ হাজার টাকার জন্য চাপ দিতে থাকেন ওই দুই পুলিশ সদস্য।

টাকা না পেয়ে কিশোরের বাড়ি থেকে একটি ছাগল নিয়ে যান তারা। পরে ফরিদ ২২ জানুয়ারি কুমিল্লা পু’লিশ সুপার বরাবর লিখিত অ’ভিযোগ করেন।

এ ঘটনায় ত’দন্ত করে সত্যতা পেয়ে রোববার রাতে ওই দুই এএসআইকে কুমিল্লা পু’লিশ লাইন্সে ক্লোজড করা হয়। এ বিষয়ে বরুড়া থা’নার ওসি (ত’দন্ত) ইকবাল বাহার জানান, দুই এএসআইকে প্রশাসনিক কারণে ক্লোজড করা হয়েছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

ট্যাগস :

কুমিল্লায় টাকা না পেয়ে ছাগল নিয়ে গেলেন ২ এএসআই!

আপডেট সময় : ০৪:৫৮:৪৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০

৩ জানুয়ারি ২০২০, আজকের মেঘনা ডটকম,
ডেস্ক রিপোর্ট ● কুমিল্লায় এক ব্যবসায়ীকে হয়রানির অ’ভিযোগে দুই এএসআইকে ক্লোজড করা হয়েছে। এ ঘটনায় বরুড়া উপজে’লা জুড়ে বেশ আলোচনা সমালোচনা শুরু হয়েছে।

বরুড়া উপজে’লার শাকপুর গ্রামের মৃ’ত আলী মিয়ার ছেলে ব্যবসায়ী ফরিদ আহমেদকে গাঁ’জা দিয়ে ফাঁ’সানোর অ’ভিযোগে বরুড়া থা’না পু’লিশের এএসআই ইব্রাহীম খলীল ও ইসমাইল হোসেনকে রোববার রাতে ক্লোজড করা হয়।

ওই ব্যবসায়ীর অ’ভিযোগ, গত ২০ জানুয়ারি রাত ৯টার দিকে এএসআই ইব্রাহীম খলীল ও ইসমাইল হোসেন ফরিদকে গাঁ’জা দিয়ে ফাঁ’সান। এ সময় শিপন নামের এক কিশোরকেও আ’টক করা হয়।

এরপর রাতেই দালালের মাধ্যমে ফরিদকে ১ লাখ টাকা এবং পরদিন কিশোরকে ৩০ হাজার টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেয়া হয়। পরে আরো ৩০ হাজার টাকার জন্য চাপ দিতে থাকেন ওই দুই পুলিশ সদস্য।

টাকা না পেয়ে কিশোরের বাড়ি থেকে একটি ছাগল নিয়ে যান তারা। পরে ফরিদ ২২ জানুয়ারি কুমিল্লা পু’লিশ সুপার বরাবর লিখিত অ’ভিযোগ করেন।

এ ঘটনায় ত’দন্ত করে সত্যতা পেয়ে রোববার রাতে ওই দুই এএসআইকে কুমিল্লা পু’লিশ লাইন্সে ক্লোজড করা হয়। এ বিষয়ে বরুড়া থা’নার ওসি (ত’দন্ত) ইকবাল বাহার জানান, দুই এএসআইকে প্রশাসনিক কারণে ক্লোজড করা হয়েছে।