ঢাকা ০২:১৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মৃতরাও ভোট দিলেন মার্কিন নির্বাচনে!

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ০৭:১৪:৪২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৪ নভেম্বর ২০২০ ১৫১ বার পড়া হয়েছে

এবার মৃত ব্যক্তিরাও ভোট দিয়েছে বিশ্বের অন্যতম ক্ষমতাধর প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে! মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) যুক্তরাষ্ট্রে আনুষ্ঠানিকভাবে ভোট-গ্রহণ শুরু হওয়ার পরপরই উঠে এমন অভিযোগ। 

নিউইয়র্ক পোস্ট জানিয়েছে আগাম ভোটের জন্য মেইলের ব্যবহার রাখা হয়েছিল। তবে অবাক করার মতো ব্যাপার হচ্ছে মেইলে মৃত মানুষের ভোটও পেয়েছে নিউইয়র্ক সিটির ইলেকশন বোর্ড।

নিউইয়র্ক সিটির ইলেকশন বোর্ড জানিয়েছে, স্ট্যাটেন আইল্যান্ড কাউন্টি থেকে ২০১২ সালে মারা যাওয়া এক ব্যক্তির ভোট পেয়েছে তারা। ফ্রান্সিস রেকশ নামে ওই ব্যক্তি ১৯১৫ সালে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তিনি একজন রেজিস্টার্ড ডেমোক্র্যাট ছিলেন। ৬ অক্টোবর মেইলের মাধ্যমে তার ভোট আসে। ইলেকশন বোর্ড ৮ অক্টোবর সেই ভোট বৈধ হিসেবে নিবন্ধনও করে।

এছাড়া ২০১৬ সালের ৪ জুলাই মৃত্যু হয় গেরট্রুড নিজারে নামে এক ভোটারের। অথচ গত ৯ অক্টোবর ভোট দিয়েছেন তিনি। ইলেকশন বোর্ড তার ভোট বৈধ হিসেবে নিবন্ধন করে ২৫ অক্টোবর।

এক টুইট পোস্টের মাধ্যমে এনওয়াইসি ইলেকশন বোর্ড বলেছে, এ ঘটনায় আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছি। তদন্তের জন্য এসব ভোটারের সব তথ্য পুলিশ ও স্থানীয় কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে। ভোট দেওয়ার সময় ভুলবশত আগে বা পরে থাকা মৃত ব্যক্তিদের নামের ঘরে স্বাক্ষর করায় এমন ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলেও মন্তব্য করেছে এনওয়াইসি ইলেকশন বোর্ড।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

ট্যাগস :

মৃতরাও ভোট দিলেন মার্কিন নির্বাচনে!

আপডেট সময় : ০৭:১৪:৪২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৪ নভেম্বর ২০২০

এবার মৃত ব্যক্তিরাও ভোট দিয়েছে বিশ্বের অন্যতম ক্ষমতাধর প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে! মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) যুক্তরাষ্ট্রে আনুষ্ঠানিকভাবে ভোট-গ্রহণ শুরু হওয়ার পরপরই উঠে এমন অভিযোগ। 

নিউইয়র্ক পোস্ট জানিয়েছে আগাম ভোটের জন্য মেইলের ব্যবহার রাখা হয়েছিল। তবে অবাক করার মতো ব্যাপার হচ্ছে মেইলে মৃত মানুষের ভোটও পেয়েছে নিউইয়র্ক সিটির ইলেকশন বোর্ড।

নিউইয়র্ক সিটির ইলেকশন বোর্ড জানিয়েছে, স্ট্যাটেন আইল্যান্ড কাউন্টি থেকে ২০১২ সালে মারা যাওয়া এক ব্যক্তির ভোট পেয়েছে তারা। ফ্রান্সিস রেকশ নামে ওই ব্যক্তি ১৯১৫ সালে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তিনি একজন রেজিস্টার্ড ডেমোক্র্যাট ছিলেন। ৬ অক্টোবর মেইলের মাধ্যমে তার ভোট আসে। ইলেকশন বোর্ড ৮ অক্টোবর সেই ভোট বৈধ হিসেবে নিবন্ধনও করে।

এছাড়া ২০১৬ সালের ৪ জুলাই মৃত্যু হয় গেরট্রুড নিজারে নামে এক ভোটারের। অথচ গত ৯ অক্টোবর ভোট দিয়েছেন তিনি। ইলেকশন বোর্ড তার ভোট বৈধ হিসেবে নিবন্ধন করে ২৫ অক্টোবর।

এক টুইট পোস্টের মাধ্যমে এনওয়াইসি ইলেকশন বোর্ড বলেছে, এ ঘটনায় আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছি। তদন্তের জন্য এসব ভোটারের সব তথ্য পুলিশ ও স্থানীয় কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে। ভোট দেওয়ার সময় ভুলবশত আগে বা পরে থাকা মৃত ব্যক্তিদের নামের ঘরে স্বাক্ষর করায় এমন ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলেও মন্তব্য করেছে এনওয়াইসি ইলেকশন বোর্ড।