ঢাকা ০৩:৫২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪, ২৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সংসার ভাঙলো অভিনেত্রী শবনম ফারিয়ার

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ০৮:১০:৪৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০ ১৬৩ বার পড়া হয়েছে

২৮ নভেম্বর ২০২০, আজকের মেঘনা. কম, ডেস্ক রিপোর্টঃ

শোবিজ অঙ্গনে আবারো ভাঙনের খবর! এবার সংসার ভাঙলো ছোটপর্দার তারকা অভিনেত্রী শবনম ফারিয়ার। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজেই বিচ্ছেদের খবরটি জানালেন এই অভিনেত্রী!

গত বছরের শুরুর দিকে বেশ জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে হারুন অর রশীদ অপুর সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন এই অভিনেত্রী। দুই বছর না ঘুরতেই তাদের দাম্পত্য জীবনে বিচ্ছেদ ঘটেছে।

শনিবার (২৮ নভেম্বর) সন্ধ্যায় নিজের ফেসবুকে ফারিয়া লেখেন, ‘মানুষের জীবন নদীর মতো। কখনও জোয়ার, কখনও ভাটা। কখনও বৃষ্টিতে পানি বেড়ে যায়, শীতকালে পানি শুকিয়ে যায়। আমাদের জীবনেও এমনটা হয়! আমাদের জীবনে কিছু মানুষ আসে; কেউ কেউ স্থায়ী হয়, কেউ কেউ কিছু কারণে স্থায়িত্ব ধরে রাখতে পারে না।’

এর আগে শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) বিচ্ছেদ পত্রে সই করেন তারা। বিচ্ছেদের পেছনে শবনম ফারিয়ার নেই কোনো অভিযোগ।

শবনম ফারিয়া বলেন, ‘‘আমার মা সব সময় একটা কথা বলে, ‘আল্লাহর হুকুম ছাড়া একটা গাছের পাতাও নড়ে না, আমরা শুধু চেষ্টা করতে পারি!’ ঠিক সেভাবেই আমি আর অপু অনেকদিন ধরেই চেষ্টা করেছি একসাথে থাকতে! কিন্তু বিষয়টা একটা পর্যায়ে খুব কঠিন হয়ে যায়! ‘মানুষ কি বলবে’ ভেবে নিজেদের উপর একটু বেশিই টর্চার করে ফেলছিলাম আমরা! ‘জীবনটা অনেক ছোট, এতো কষ্ট নিয়ে বেঁচে থাকার কি দরকার’? এইটা ভেবে আমরা এ বছরের শুরু থেকেই সিদ্ধান্তে আসি আমরা আর একসাথে থেকে কষ্টে থাকতে চাই না!’’

আড়াই বছরের বৈবাহিক সম্পর্কের ইতি টানার প্রসঙ্গে ফারিয়া বলেন, ‘তাও বছর খানেক সময় নিয়েছি পরষ্পরকে বুঝতে! ফাইনালি ‘আল্লাহ্ যা করেন ভালোর জন্যেই করেন’ ভেবে আমরা আমাদের প্রায় আড়াই বছরের বৈবাহিক জীবনের অবসান ঘটিয়ে আবারও ৫ বছরের পুরানো বন্ধুত্বে ফিরে গিয়েছি। বিবাহে বিচ্ছেদ হয়, কিন্তু ভালবাসার বিচ্ছেদ নেই! বন্ধুত্বের বিচ্ছেদ নেই! যতদিন বেঁচে আছি আমাদের ভালবাসা ও বন্ধুত্ব থাকবে।’

শবনম ফারিয়া আরো বলেন, ‘আমরা ভালোবেসে বিয়ে করেছি। অনেক পরিকল্পনা ছিল সংসার ঘিরে। কিন্তু নানাবিধ কারণে সেগুলো বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়নি। ফলে আমরা দুজনে মিলেই দলছুট হওয়ার মতো কঠিন সিদ্ধান্তটি নিয়েছি।’

গত বছরের ১ ফেব্রুয়ারি জমকালো আয়োজনের মাধ্যমে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হন অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া ও বেসরকারি চাকরিজীবী হারুন অর রশীদ অপু। ২০১৫ সালে ফেসবুকের মাধ্যমে ফারিয়া-অপুর পরিচয় হয়। এর পর দুজনের ভালো বন্ধুত্ব হয়। বন্ধুত্বের সীমানা পেরিয়ে ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে আংটি বদল হয় তাদের।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

ট্যাগস :

সংসার ভাঙলো অভিনেত্রী শবনম ফারিয়ার

আপডেট সময় : ০৮:১০:৪৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০

২৮ নভেম্বর ২০২০, আজকের মেঘনা. কম, ডেস্ক রিপোর্টঃ

শোবিজ অঙ্গনে আবারো ভাঙনের খবর! এবার সংসার ভাঙলো ছোটপর্দার তারকা অভিনেত্রী শবনম ফারিয়ার। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজেই বিচ্ছেদের খবরটি জানালেন এই অভিনেত্রী!

গত বছরের শুরুর দিকে বেশ জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে হারুন অর রশীদ অপুর সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন এই অভিনেত্রী। দুই বছর না ঘুরতেই তাদের দাম্পত্য জীবনে বিচ্ছেদ ঘটেছে।

শনিবার (২৮ নভেম্বর) সন্ধ্যায় নিজের ফেসবুকে ফারিয়া লেখেন, ‘মানুষের জীবন নদীর মতো। কখনও জোয়ার, কখনও ভাটা। কখনও বৃষ্টিতে পানি বেড়ে যায়, শীতকালে পানি শুকিয়ে যায়। আমাদের জীবনেও এমনটা হয়! আমাদের জীবনে কিছু মানুষ আসে; কেউ কেউ স্থায়ী হয়, কেউ কেউ কিছু কারণে স্থায়িত্ব ধরে রাখতে পারে না।’

এর আগে শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) বিচ্ছেদ পত্রে সই করেন তারা। বিচ্ছেদের পেছনে শবনম ফারিয়ার নেই কোনো অভিযোগ।

শবনম ফারিয়া বলেন, ‘‘আমার মা সব সময় একটা কথা বলে, ‘আল্লাহর হুকুম ছাড়া একটা গাছের পাতাও নড়ে না, আমরা শুধু চেষ্টা করতে পারি!’ ঠিক সেভাবেই আমি আর অপু অনেকদিন ধরেই চেষ্টা করেছি একসাথে থাকতে! কিন্তু বিষয়টা একটা পর্যায়ে খুব কঠিন হয়ে যায়! ‘মানুষ কি বলবে’ ভেবে নিজেদের উপর একটু বেশিই টর্চার করে ফেলছিলাম আমরা! ‘জীবনটা অনেক ছোট, এতো কষ্ট নিয়ে বেঁচে থাকার কি দরকার’? এইটা ভেবে আমরা এ বছরের শুরু থেকেই সিদ্ধান্তে আসি আমরা আর একসাথে থেকে কষ্টে থাকতে চাই না!’’

আড়াই বছরের বৈবাহিক সম্পর্কের ইতি টানার প্রসঙ্গে ফারিয়া বলেন, ‘তাও বছর খানেক সময় নিয়েছি পরষ্পরকে বুঝতে! ফাইনালি ‘আল্লাহ্ যা করেন ভালোর জন্যেই করেন’ ভেবে আমরা আমাদের প্রায় আড়াই বছরের বৈবাহিক জীবনের অবসান ঘটিয়ে আবারও ৫ বছরের পুরানো বন্ধুত্বে ফিরে গিয়েছি। বিবাহে বিচ্ছেদ হয়, কিন্তু ভালবাসার বিচ্ছেদ নেই! বন্ধুত্বের বিচ্ছেদ নেই! যতদিন বেঁচে আছি আমাদের ভালবাসা ও বন্ধুত্ব থাকবে।’

শবনম ফারিয়া আরো বলেন, ‘আমরা ভালোবেসে বিয়ে করেছি। অনেক পরিকল্পনা ছিল সংসার ঘিরে। কিন্তু নানাবিধ কারণে সেগুলো বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়নি। ফলে আমরা দুজনে মিলেই দলছুট হওয়ার মতো কঠিন সিদ্ধান্তটি নিয়েছি।’

গত বছরের ১ ফেব্রুয়ারি জমকালো আয়োজনের মাধ্যমে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হন অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া ও বেসরকারি চাকরিজীবী হারুন অর রশীদ অপু। ২০১৫ সালে ফেসবুকের মাধ্যমে ফারিয়া-অপুর পরিচয় হয়। এর পর দুজনের ভালো বন্ধুত্ব হয়। বন্ধুত্বের সীমানা পেরিয়ে ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে আংটি বদল হয় তাদের।