ঢাকা ০২:২৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টাকার জন্য বাবাকে হত্যা করলো ছেলে

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ০২:৫৯:১২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০ ১৩৫ বার পড়া হয়েছে

২৯ নভেম্বর ২০২০, আজকের মেঘনা. কম, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে ব্যবসার টাকা পয়সা নিয়ে দ্বন্দ্বে সরতা দিয়ে কুপিয়ে বাবাকে হত‌্যা করেছে এক ছেলে। এ ঘটনায় ছেলে নাজমুল হাসানকে অভিযান চালিয়ে আটক করেছে পুলিশ।

রোববার (২৯ নভেম্বর) সকালে ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের মরদেহ সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ। এর আগে শনিবার (২৮ নভেম্বর) গভীর রাতে উপজেলার বাদাঘাট বাজারে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ তরফদার।

নিহত বাবার নাম ইসলাম উদ্দিন (৫০)। তিনি উপজেলার ৫ নম্বর বাদাঘাট ইউনিয়নের কামড়াবন্দ গ্রামের মৃত ফালু মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় ঘাতক ছেলের নাম নাজমুল হাসান (২০)।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ তরফদার জানান, শনিবার রাত ১২টার দিকে উপজেলার বাদাঘাট বাজারে নাজমুল হাসানের কসমেটিক্সের দোকানে ব্যবসার টাকা-পয়সা নিয়ে তার বাবা ইসলাম উদ্দিনের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে নাজমুল হাসান ক্ষিপ্ত হয়ে দোকানে থাকা সুপারি কাটার লোহার সরতা দিয়ে বাবার মাথায় একাধিক আঘাত করেন। এতে তার বাবা জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। পরে বাজারের অন‌্য দোকানিরা তাকে উদ্ধার করে বাদাঘাট বাজারের স্থানীয় চিকিৎসক হাফিজ উদ্দিনের চেম্বারে নিয়ে গেলে তিনি তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনার পরপরই ঘাতক নাজমুল বাবাকে ইসলাম উদ্দিনকে রেখে পলিয়ে যান।

খবর পেয়ে পুলিশ রাত সাড়ে ১২টায় ঘটনার স্থল পরিদর্শন করে নিহতের লাশ উদ্ধার করে। এরপর আজ সকালে তা ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠায়।

ওসি মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ তরফদার আরো জানান, রাতেই অভিযান চালিয়ে ঘাতক নাজমুলকে আটক করা হয়েছে। নিহতের ছোট ভাই বাদী হয়ে তাহিরপুর থানায় হত্যা মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

ট্যাগস :

টাকার জন্য বাবাকে হত্যা করলো ছেলে

আপডেট সময় : ০২:৫৯:১২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০

২৯ নভেম্বর ২০২০, আজকের মেঘনা. কম, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে ব্যবসার টাকা পয়সা নিয়ে দ্বন্দ্বে সরতা দিয়ে কুপিয়ে বাবাকে হত‌্যা করেছে এক ছেলে। এ ঘটনায় ছেলে নাজমুল হাসানকে অভিযান চালিয়ে আটক করেছে পুলিশ।

রোববার (২৯ নভেম্বর) সকালে ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের মরদেহ সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ। এর আগে শনিবার (২৮ নভেম্বর) গভীর রাতে উপজেলার বাদাঘাট বাজারে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ তরফদার।

নিহত বাবার নাম ইসলাম উদ্দিন (৫০)। তিনি উপজেলার ৫ নম্বর বাদাঘাট ইউনিয়নের কামড়াবন্দ গ্রামের মৃত ফালু মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় ঘাতক ছেলের নাম নাজমুল হাসান (২০)।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ তরফদার জানান, শনিবার রাত ১২টার দিকে উপজেলার বাদাঘাট বাজারে নাজমুল হাসানের কসমেটিক্সের দোকানে ব্যবসার টাকা-পয়সা নিয়ে তার বাবা ইসলাম উদ্দিনের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে নাজমুল হাসান ক্ষিপ্ত হয়ে দোকানে থাকা সুপারি কাটার লোহার সরতা দিয়ে বাবার মাথায় একাধিক আঘাত করেন। এতে তার বাবা জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। পরে বাজারের অন‌্য দোকানিরা তাকে উদ্ধার করে বাদাঘাট বাজারের স্থানীয় চিকিৎসক হাফিজ উদ্দিনের চেম্বারে নিয়ে গেলে তিনি তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনার পরপরই ঘাতক নাজমুল বাবাকে ইসলাম উদ্দিনকে রেখে পলিয়ে যান।

খবর পেয়ে পুলিশ রাত সাড়ে ১২টায় ঘটনার স্থল পরিদর্শন করে নিহতের লাশ উদ্ধার করে। এরপর আজ সকালে তা ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠায়।

ওসি মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ তরফদার আরো জানান, রাতেই অভিযান চালিয়ে ঘাতক নাজমুলকে আটক করা হয়েছে। নিহতের ছোট ভাই বাদী হয়ে তাহিরপুর থানায় হত্যা মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।