ঢাকা ১০:৫৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভারতে অজানা রোগের প্রকোপ: আক্রান্ত ৪০০, মৃত্যু ১

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ০৬:৩৫:৩০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২০ ১৩৮ বার পড়া হয়েছে

৮ ডিসেম্বর ২০২০, আজকের মেঘনা. কম, ডেস্ক রিপোর্টঃ

অজানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের মানুষ। এখনো পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে একজনের। চিকিৎসকরা রোগের উৎস বুঝতে পারছেন না।

করোনার মধ্যেই আরো এক অজানা রোগ ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশে। এখনো পর্যন্ত অজানা রোগে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৪০০ জন। মৃত্যু হয়েছে এক জনের।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, নতুন এই রোগ স্নায়ুতন্ত্রকে আক্রান্ত করছে। রোগীদের কনভালশন (খিঁচুনি বা তড়কা) হচ্ছে। বহু রোগী অজ্ঞান হয়ে যাচ্ছেন। সঙ্গে জ্বর। আক্রান্ত রোগীদের শরীরে করোনার ভাইরাস পাওয়া যায়নি। জাপানি এনকেফেলাইটিস, ডেঙ্গু, রাবিসের মতো জীবাণুও রোগীদের শরীরে মেলেনি। কেন তাদের এমন হচ্ছে, এখনো পর্যন্ত তা বোঝা যায়নি। অন্ধ্র প্রদেশের রাজধানী শহরে প্রায় ১৫০ জন রোগী আপাতত হাসপাতালে ভর্তি। বাকিদেরও যে কোনো সময় হাসপাতালে ভর্তি করা হতে পারে।

চিকিৎসকদের একাংশের ধারণা, ভাইরাস থেকে এই রোগের উৎপত্তি নয়। এর পিছনে অন্য কোনো কারণ রয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল রিসার্চের কর্মকর্তারা মঙ্গলবার অন্ধ্রপ্রদেশে যাবেন এবং রোগীদের দেখবেন। অন্য দিকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী জগনমোহন রেড্ডি সোমবারই হাসপাতালে গিয়েছিলেন। রাজ্যের বিরোধী নেতা চন্দ্রবাবু নায়েডু অন্ধ্র জুড়ে মেডিক্যাল ইমার্জেন্সি ঘোষণার আবেদন জানিয়েছেন।

বিশেষজ্ঞদের একাংশের ধারণা, জল থেকে এই রোগ হতে পারে। এখনো পর্যন্ত একটি এলাকা থেকে সব চেয়ে বেশি রোগী পাওয়া গিয়েছে। সেখানকার জলে ধাতুর পরিমাণ বেশি বলে কি মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়ছেন? এ প্রশ্ন উঠছে। যদিও এখনো পর্যন্ত সে বিষয়েও কোনো স্পষ্ট ধারণা মেলেনি।

গত ৫ ডিসেম্বর রাজ্যে প্রথম এই রোগে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। মধ্যবয়সী এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, সব বয়সের ব্যক্তিরাই নতুন এই অজানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। সকলেরই লক্ষণ এক। সূত্র: ডয়েচে ভেলে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

ট্যাগস :

ভারতে অজানা রোগের প্রকোপ: আক্রান্ত ৪০০, মৃত্যু ১

আপডেট সময় : ০৬:৩৫:৩০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২০

৮ ডিসেম্বর ২০২০, আজকের মেঘনা. কম, ডেস্ক রিপোর্টঃ

অজানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের মানুষ। এখনো পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে একজনের। চিকিৎসকরা রোগের উৎস বুঝতে পারছেন না।

করোনার মধ্যেই আরো এক অজানা রোগ ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশে। এখনো পর্যন্ত অজানা রোগে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৪০০ জন। মৃত্যু হয়েছে এক জনের।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, নতুন এই রোগ স্নায়ুতন্ত্রকে আক্রান্ত করছে। রোগীদের কনভালশন (খিঁচুনি বা তড়কা) হচ্ছে। বহু রোগী অজ্ঞান হয়ে যাচ্ছেন। সঙ্গে জ্বর। আক্রান্ত রোগীদের শরীরে করোনার ভাইরাস পাওয়া যায়নি। জাপানি এনকেফেলাইটিস, ডেঙ্গু, রাবিসের মতো জীবাণুও রোগীদের শরীরে মেলেনি। কেন তাদের এমন হচ্ছে, এখনো পর্যন্ত তা বোঝা যায়নি। অন্ধ্র প্রদেশের রাজধানী শহরে প্রায় ১৫০ জন রোগী আপাতত হাসপাতালে ভর্তি। বাকিদেরও যে কোনো সময় হাসপাতালে ভর্তি করা হতে পারে।

চিকিৎসকদের একাংশের ধারণা, ভাইরাস থেকে এই রোগের উৎপত্তি নয়। এর পিছনে অন্য কোনো কারণ রয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল রিসার্চের কর্মকর্তারা মঙ্গলবার অন্ধ্রপ্রদেশে যাবেন এবং রোগীদের দেখবেন। অন্য দিকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী জগনমোহন রেড্ডি সোমবারই হাসপাতালে গিয়েছিলেন। রাজ্যের বিরোধী নেতা চন্দ্রবাবু নায়েডু অন্ধ্র জুড়ে মেডিক্যাল ইমার্জেন্সি ঘোষণার আবেদন জানিয়েছেন।

বিশেষজ্ঞদের একাংশের ধারণা, জল থেকে এই রোগ হতে পারে। এখনো পর্যন্ত একটি এলাকা থেকে সব চেয়ে বেশি রোগী পাওয়া গিয়েছে। সেখানকার জলে ধাতুর পরিমাণ বেশি বলে কি মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়ছেন? এ প্রশ্ন উঠছে। যদিও এখনো পর্যন্ত সে বিষয়েও কোনো স্পষ্ট ধারণা মেলেনি।

গত ৫ ডিসেম্বর রাজ্যে প্রথম এই রোগে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। মধ্যবয়সী এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, সব বয়সের ব্যক্তিরাই নতুন এই অজানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। সকলেরই লক্ষণ এক। সূত্র: ডয়েচে ভেলে।