ঢাকা ০৪:৩৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মেঘনায় চাদাবাজির অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ০৩:০৩:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ মার্চ ২০২১ ১৬৮ বার পড়া হয়েছে
৩০ মার্চ ২০২১,আজকের মেঘনা ডটকম, মেঘনা প্রতিনিধি  :কুমিল্লার মেঘনা উপজেলায় চাদাবাজির অভিযোগে যুবককে গ্রেপ্তার করেছে মেঘনা থানা পুলিশ। সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার পাড়ারবন্দ ব্রিজের নিচ থেকে চাদা তুলা অবস্থায়  লক্ষনখোলা(দক্ষিনপাড়া) গ্রামের মো: শফিক মিয়ার ছেলে মো: জুয়েল( ২২) কে এস আই নাজিমুদ্দিন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে। মেঘনা থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুল মজিদ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।এ বিষয়ে মেঘনা থানায় ৪ জনকে আসামি করে মামলা করা হয়। বাকী আসামি পলাতক। এজাহার সূত্রে জানা  যায়  সিলেট থেকে ছেড়ে আসা সিলেকশন বালু বাহী জাহাজ মোহনা -৮ মেঘনা উপজেলার শাখা নদীর উপর নির্মিত পাড়ারবন্দ ব্রিজের নিচে  আসার পর মোঃ জুয়েল, জসিম, নয়ন, জিয়া সহ একদল চাদাবাজ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে জাহাজে থাকা স্টাফদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে নগদ অর্থ ও মালামাল নিয়ে যাচ্ছে এমন সংবাদ অফিসার ইনচার্জ আব্দুল মজিদ এর নিকট এলে তিনি টহলরত এস আই নাজিমুদ্দিন কে তাদের গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিলে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে  একজন কে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় বাকীরা ইঞ্জিনচালিত  ট্রলার যোগে পালিয়ে যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

ট্যাগস :

মেঘনায় চাদাবাজির অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

আপডেট সময় : ০৩:০৩:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ মার্চ ২০২১
৩০ মার্চ ২০২১,আজকের মেঘনা ডটকম, মেঘনা প্রতিনিধি  :কুমিল্লার মেঘনা উপজেলায় চাদাবাজির অভিযোগে যুবককে গ্রেপ্তার করেছে মেঘনা থানা পুলিশ। সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার পাড়ারবন্দ ব্রিজের নিচ থেকে চাদা তুলা অবস্থায়  লক্ষনখোলা(দক্ষিনপাড়া) গ্রামের মো: শফিক মিয়ার ছেলে মো: জুয়েল( ২২) কে এস আই নাজিমুদ্দিন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে। মেঘনা থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুল মজিদ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।এ বিষয়ে মেঘনা থানায় ৪ জনকে আসামি করে মামলা করা হয়। বাকী আসামি পলাতক। এজাহার সূত্রে জানা  যায়  সিলেট থেকে ছেড়ে আসা সিলেকশন বালু বাহী জাহাজ মোহনা -৮ মেঘনা উপজেলার শাখা নদীর উপর নির্মিত পাড়ারবন্দ ব্রিজের নিচে  আসার পর মোঃ জুয়েল, জসিম, নয়ন, জিয়া সহ একদল চাদাবাজ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে জাহাজে থাকা স্টাফদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে নগদ অর্থ ও মালামাল নিয়ে যাচ্ছে এমন সংবাদ অফিসার ইনচার্জ আব্দুল মজিদ এর নিকট এলে তিনি টহলরত এস আই নাজিমুদ্দিন কে তাদের গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিলে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে  একজন কে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় বাকীরা ইঞ্জিনচালিত  ট্রলার যোগে পালিয়ে যায়।