ঢাকা ০৩:৫৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কচুক্ষেতে মানুষের খণ্ডিত পায়ের দু’টি অংশ, ঘিরে রেখেছে পুলিশ

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ১১:০৭:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২১ জুন ২০২১ ১৪৭ বার পড়া হয়েছে

২১ জুন ২০২১, আজকের মেঘনা. কম, ডেস্ক রিপোর্টঃ

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল যাত্রাপাশা এলাকায় কচুক্ষেত থেকে মানুষের খণ্ডিত পায়ের দু’টি অংশ পাওয়া গেছে। সোমবার (২১ জুন) সকালে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে জায়গাটি ঘিরে রাখে।

শ্রীমঙ্গল থানাধীন মীর্জাপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই কাশি চক্রবর্তী জানান, সকালে উপজেলার মীর্জাপুর ইউনিয়নের যাত্রাপাশা এলাকার দক্ষিণ পাচাউন গ্রামে এক কৃষকের কচুক্ষেতে মানুষের একটি পা পাওয়া গেছে।

তিনি জানান, খণ্ডিত পা টি পচে দুর্গন্ধ বের হচ্ছে। পায়ের কমর থেকে হাঁটু পর্যন্ত এক টুকরো এবং হাঁটু থেকে পায়ের নিচ অংশের অপর অংশ টুকরো পাওয়া গেছে। এর পাশে একটি প্লাস্টিকের থলে পড়ে ছিলো। ধারণা করা হচ্ছে ওই থলের ভেতর পায়ের অংশ দু’টি ছিলো। শিয়াল বা কুকুর পায়ের টুকরোগুলো টেনে বের করে থাকতে পারে। ক্ষেতের মধ্যে ওই থলে টেনে নেয়ার দাগও রয়েছে।

তিনি জানান, চারদিক ঘুরে দেখছেন বডির অংশ অন্য কোথাও পাওয়া যায় কিনা। এখন পর্যন্ত শ্রীমঙ্গল উপজেলায় কোনো মানুষ নিখোঁজ হওয়ারও খবর পাওয়া যায়নি।

এদিকে খণ্ডিত পা দেখে অনেকে ধারণা করছেন এটি কোনো নারীর পা হতে পারে। বিষয়টি অধিকতর তদন্তের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করেছে পুলিশ।

শ্রীমঙ্গল থানার ওসি মো. আব্দুছ ছালেক বলেন, এ নিয়ে পিবিআই তদন্তে নেমেছে, এছাড়াও দেশের সব থানায় মেসেজ পাঠানো হয়েছে পাবিহীন কোনো লাশ পাওয়া গেলে বিষয়টি শ্রীমঙ্গল থানাকে অবহিত করার জন্য।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

ট্যাগস :

কচুক্ষেতে মানুষের খণ্ডিত পায়ের দু’টি অংশ, ঘিরে রেখেছে পুলিশ

আপডেট সময় : ১১:০৭:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২১ জুন ২০২১

২১ জুন ২০২১, আজকের মেঘনা. কম, ডেস্ক রিপোর্টঃ

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল যাত্রাপাশা এলাকায় কচুক্ষেত থেকে মানুষের খণ্ডিত পায়ের দু’টি অংশ পাওয়া গেছে। সোমবার (২১ জুন) সকালে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে জায়গাটি ঘিরে রাখে।

শ্রীমঙ্গল থানাধীন মীর্জাপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই কাশি চক্রবর্তী জানান, সকালে উপজেলার মীর্জাপুর ইউনিয়নের যাত্রাপাশা এলাকার দক্ষিণ পাচাউন গ্রামে এক কৃষকের কচুক্ষেতে মানুষের একটি পা পাওয়া গেছে।

তিনি জানান, খণ্ডিত পা টি পচে দুর্গন্ধ বের হচ্ছে। পায়ের কমর থেকে হাঁটু পর্যন্ত এক টুকরো এবং হাঁটু থেকে পায়ের নিচ অংশের অপর অংশ টুকরো পাওয়া গেছে। এর পাশে একটি প্লাস্টিকের থলে পড়ে ছিলো। ধারণা করা হচ্ছে ওই থলের ভেতর পায়ের অংশ দু’টি ছিলো। শিয়াল বা কুকুর পায়ের টুকরোগুলো টেনে বের করে থাকতে পারে। ক্ষেতের মধ্যে ওই থলে টেনে নেয়ার দাগও রয়েছে।

তিনি জানান, চারদিক ঘুরে দেখছেন বডির অংশ অন্য কোথাও পাওয়া যায় কিনা। এখন পর্যন্ত শ্রীমঙ্গল উপজেলায় কোনো মানুষ নিখোঁজ হওয়ারও খবর পাওয়া যায়নি।

এদিকে খণ্ডিত পা দেখে অনেকে ধারণা করছেন এটি কোনো নারীর পা হতে পারে। বিষয়টি অধিকতর তদন্তের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করেছে পুলিশ।

শ্রীমঙ্গল থানার ওসি মো. আব্দুছ ছালেক বলেন, এ নিয়ে পিবিআই তদন্তে নেমেছে, এছাড়াও দেশের সব থানায় মেসেজ পাঠানো হয়েছে পাবিহীন কোনো লাশ পাওয়া গেলে বিষয়টি শ্রীমঙ্গল থানাকে অবহিত করার জন্য।