ঢাকা ০৩:৫৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নিজ ঘরে ঝুলছিলো চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীর লাশ

জয়পুরহাট প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ১১:০৫:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২১ জুন ২০২১ ১৪৮ বার পড়া হয়েছে

২১ জুন ২০২১, আজকের মেঘনা. কম, ডেস্ক রিপোর্টঃ

জয়পুরহাটের পাঁচবিবি আলম হোসেন চঞ্চল (৪২) নামের এক ব্যক্তির ফাঁস দেয়া ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য ও আগামী নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ছিলেন।

সোমবার (২১ জুন) সকালে নিজ ঘর থেকে উপজেলার আমিরপুর গ্রামের সামছুদ্দিন হোসেনের ছেলে আলম হোসেন চঞ্চলের লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহতর পরিবার জানায়, রাতে খাবার খেয়ে বাড়ির সবাই ঘুমিয়ে পড়ে। কখন যে ঘরের তালার বাঁশের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়েছে আমরা কেউ বলতে পারি না। ভোরে ঘুম থেকে না উঠায় বড় মেয়ে মুনিশা দরজায় অনেক ডাকাডাকি করে। এতে সাড়া না পেয়ে মেয়ে চিৎকার করলে পরিবারের সদস্যরা ঘরের দরজা ভেঙে দেখতে পায় তার লাশ ঝুলছে।

পাঁচবিবি থানার ওসি পলাশ চন্দ্র দেব বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে কোনো অভিযোগ না থাকায় ও পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

ট্যাগস :

নিজ ঘরে ঝুলছিলো চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীর লাশ

আপডেট সময় : ১১:০৫:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২১ জুন ২০২১

২১ জুন ২০২১, আজকের মেঘনা. কম, ডেস্ক রিপোর্টঃ

জয়পুরহাটের পাঁচবিবি আলম হোসেন চঞ্চল (৪২) নামের এক ব্যক্তির ফাঁস দেয়া ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য ও আগামী নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ছিলেন।

সোমবার (২১ জুন) সকালে নিজ ঘর থেকে উপজেলার আমিরপুর গ্রামের সামছুদ্দিন হোসেনের ছেলে আলম হোসেন চঞ্চলের লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহতর পরিবার জানায়, রাতে খাবার খেয়ে বাড়ির সবাই ঘুমিয়ে পড়ে। কখন যে ঘরের তালার বাঁশের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়েছে আমরা কেউ বলতে পারি না। ভোরে ঘুম থেকে না উঠায় বড় মেয়ে মুনিশা দরজায় অনেক ডাকাডাকি করে। এতে সাড়া না পেয়ে মেয়ে চিৎকার করলে পরিবারের সদস্যরা ঘরের দরজা ভেঙে দেখতে পায় তার লাশ ঝুলছে।

পাঁচবিবি থানার ওসি পলাশ চন্দ্র দেব বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে কোনো অভিযোগ না থাকায় ও পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে।