ঢাকা ০৩:৫৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গ্রামেও পানির ট্যাংক স্থাপনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ০৯:৪২:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১ ১৫৭ বার পড়া হয়েছে

২২ জুন ২০২১, আজকের মেঘনা. কম, ডেস্ক রিপোর্টঃ

সাধারণ মানুষের জন্য সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গ্রামেও পানির ট্যাংক স্থাপনের নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম মান্নান।

মঙ্গলবার (২২ জুন) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে ‘গোপালগঞ্জ জেলার পল্লী এলাকায় নিরাপদ পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থার উন্নয়ন’ শীর্ষক একটি প্রকল্প অনুমোদনের সময় প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশ দেন বলে মান্নান জানান।

শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে এ বৈঠক হয়। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পরে এক সংবাদ সম্মেলনে পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, গ্রামে গ্রামে সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত করার জন্য পানির ট্যাংক স্থাপনের নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। দেশের প্রান্তিক অঞ্চল বা গ্রামগুলোতে শহরের আধুনিক সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করতে যেসব প্রকল্প নেওয়া হবে তা জেনে-বুঝে এমনকি না বুঝেও দ্রুত পাস করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী বিভিন্ন সময়ে যেসব নির্দেশনা ও অনুশাসন দিচ্ছেন, তার কতটুকু বাস্তবায়ন হচ্ছে, তা জানতে চাইলে পরিকল্পা মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসনের গতি এবং তা বাস্তবায়নের চিত্র বিপরীত৷ অনুশাসন দ্রুত দেওয়া হলেও বিধি বিধানের কারণে বাস্তবায়ন বা মেনে চলার গতি কম।

প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসনগুলো মন্ত্রণালায় ও সংস্থা ভিত্তিক কতটুকু বাস্তবায়ন করা হল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং তা নিয়ে পর্যালোচনা হবে বলেও জানান তিনি।

পরিকল্পনা মন্ত্রী জানান, বৈঠকে ‘গোপালগঞ্জ জেলার পল্লী এলাকার নিরাপদ পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থার উন্নয়ন’ শীর্ষক একটি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। স্থানীয় সরকার বিভাগের উদ্যোগে গৃহীত এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর।

গোপালগঞ্জ সদর, কাশিয়ানি, মুকসুদপুর, টুঙ্গীপাড়া ও কোটালীপাড়া উপজেলার পল্লী এলাকায় সুপেয় পানি ও স্যানেটেশন ব্যবস্থার উন্নয়নে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে।

২৬১ কোটি ৩৩ লাখ টাকা ব্যয়ের এ প্রকল্প আগামী ২৩ সালের জুনের মধ্যে শেষ করার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে।

মন্ত্রী জানান, ওই এলাকায় নিরাপদ পানি সরবরাহ এবং স্যানিটেশন ব্যবস্থার সম্প্রসারণ ও উন্নয়নের মাধ্যমে গোপালগঞ্জ জেলার পল্লী এলাকায় বসবাসরত জনগণের স্বাস্থ্য ও জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন করার লক্ষ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে।

এর আওতায় ওই এলাকায় ৩ হাজার ২০৯টি গভীর নলকূপ, সাবমার্সিবল পাম্প ও জলাধার নির্মাণ করা হবে। গ্রাম এলাকায় পাইপের মাধ্যমে সার্ফেস ওয়াটার সরবরাহের প্ল্যান্টও স্থাপন করা হবে। এছাড়া নলকূপসহ আর্সেনিক আয়রন রিমুভাল প্ল্যান্ট, পাবলিক টয়লেট, অফসেট টুইন পিট ল্যাট্রিন নির্মাণ করা হবে এ প্রকল্পের মাধ্যমে।

অন্যদের মধ্যে পরিকল্পনা সচিব মো. জয়নুল বারী, বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের (আইএমইডি) সচিব প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তী, পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য অধ্যাপক শামসুল আলম, ভৌত অবকাঠামো বিভাগের সদস্য মামুন আল রশিদ এবং শিল্প শক্তি বিভাগের সদস্য শরিফা খান একনেক পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

ট্যাগস :

গ্রামেও পানির ট্যাংক স্থাপনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

আপডেট সময় : ০৯:৪২:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১

২২ জুন ২০২১, আজকের মেঘনা. কম, ডেস্ক রিপোর্টঃ

সাধারণ মানুষের জন্য সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গ্রামেও পানির ট্যাংক স্থাপনের নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম মান্নান।

মঙ্গলবার (২২ জুন) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে ‘গোপালগঞ্জ জেলার পল্লী এলাকায় নিরাপদ পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থার উন্নয়ন’ শীর্ষক একটি প্রকল্প অনুমোদনের সময় প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশ দেন বলে মান্নান জানান।

শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে এ বৈঠক হয়। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পরে এক সংবাদ সম্মেলনে পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, গ্রামে গ্রামে সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত করার জন্য পানির ট্যাংক স্থাপনের নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। দেশের প্রান্তিক অঞ্চল বা গ্রামগুলোতে শহরের আধুনিক সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করতে যেসব প্রকল্প নেওয়া হবে তা জেনে-বুঝে এমনকি না বুঝেও দ্রুত পাস করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী বিভিন্ন সময়ে যেসব নির্দেশনা ও অনুশাসন দিচ্ছেন, তার কতটুকু বাস্তবায়ন হচ্ছে, তা জানতে চাইলে পরিকল্পা মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসনের গতি এবং তা বাস্তবায়নের চিত্র বিপরীত৷ অনুশাসন দ্রুত দেওয়া হলেও বিধি বিধানের কারণে বাস্তবায়ন বা মেনে চলার গতি কম।

প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসনগুলো মন্ত্রণালায় ও সংস্থা ভিত্তিক কতটুকু বাস্তবায়ন করা হল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং তা নিয়ে পর্যালোচনা হবে বলেও জানান তিনি।

পরিকল্পনা মন্ত্রী জানান, বৈঠকে ‘গোপালগঞ্জ জেলার পল্লী এলাকার নিরাপদ পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থার উন্নয়ন’ শীর্ষক একটি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। স্থানীয় সরকার বিভাগের উদ্যোগে গৃহীত এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর।

গোপালগঞ্জ সদর, কাশিয়ানি, মুকসুদপুর, টুঙ্গীপাড়া ও কোটালীপাড়া উপজেলার পল্লী এলাকায় সুপেয় পানি ও স্যানেটেশন ব্যবস্থার উন্নয়নে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে।

২৬১ কোটি ৩৩ লাখ টাকা ব্যয়ের এ প্রকল্প আগামী ২৩ সালের জুনের মধ্যে শেষ করার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে।

মন্ত্রী জানান, ওই এলাকায় নিরাপদ পানি সরবরাহ এবং স্যানিটেশন ব্যবস্থার সম্প্রসারণ ও উন্নয়নের মাধ্যমে গোপালগঞ্জ জেলার পল্লী এলাকায় বসবাসরত জনগণের স্বাস্থ্য ও জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন করার লক্ষ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে।

এর আওতায় ওই এলাকায় ৩ হাজার ২০৯টি গভীর নলকূপ, সাবমার্সিবল পাম্প ও জলাধার নির্মাণ করা হবে। গ্রাম এলাকায় পাইপের মাধ্যমে সার্ফেস ওয়াটার সরবরাহের প্ল্যান্টও স্থাপন করা হবে। এছাড়া নলকূপসহ আর্সেনিক আয়রন রিমুভাল প্ল্যান্ট, পাবলিক টয়লেট, অফসেট টুইন পিট ল্যাট্রিন নির্মাণ করা হবে এ প্রকল্পের মাধ্যমে।

অন্যদের মধ্যে পরিকল্পনা সচিব মো. জয়নুল বারী, বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের (আইএমইডি) সচিব প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তী, পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য অধ্যাপক শামসুল আলম, ভৌত অবকাঠামো বিভাগের সদস্য মামুন আল রশিদ এবং শিল্প শক্তি বিভাগের সদস্য শরিফা খান একনেক পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।