ঢাকা ০৭:৪৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ঘুস দাবির সত্যতা পেয়েছে দুদক 

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ১০:৪৫:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ জুন ২০২৩ ৪২ বার পড়া হয়েছে

৮ জুন ২০২৩ ইং, আজকের মেঘনা ডটকম, নিজস্ব প্রতিবেদক।।

দিনাজপুর জেলার হাকিমপুর উপজেলার আলিহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৪০ দিনের কর্মসৃজন কর্মসূচিতে ভুয়া শ্রমিকের নাম ব্যবহার করে টাকা উত্তোলন এবং ভিজিডি কার্ড প্রদানে ঘুস দাবির অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন( দুদক)। দিনাজপুর জেলা দুর্নীতি দমন কমিশনের( দুদক) এনফোর্স মেন্ট টিম অভিযান পরিচালনাকালে এ সত্যতা পায়। ৮ জুন (বৃহস্পতিবার ) দুর্নীতি দমন কমিশনের
(দুদক) জনসংযোগ দপ্তর সূত্রে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। সূত্র জানায়
চেয়ারম্যান, আলিহাট ইউনিয়ন পরিষদ, হাকিমপুর, দিনাজপুরের  বিরুদ্ধে ৪০ দিনের কর্মসৃজন কর্মসূচিতে ভুয়া শ্রমিকের নাম ব্যবহার করে টাকা উত্তোলন এবং ভিজিডি কার্ড প্রদানে ঘুস দাবির অভিযোগের প্রেক্ষিতে দুর্নীতি দমন কমিশন, জেলা কার্যালয় হতে একটি এনফোর্সমেন্ট অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানকালে দৈবচয়নের ভিত্তিতে কয়েকজন ভিজিডিং কার্ড এর সুবিধাভোগী ও শ্রমিকের সাথে কথা বলে  অভিযোগের প্রাথমিকভাবে সত্যতা পাওয়া যায়। অভিযানকালে অভিযোগ সংশ্লিষ্ট  প্রয়োজনীয়  রেকর্ডপত্র সংগ্রহ করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

ট্যাগস :

ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ঘুস দাবির সত্যতা পেয়েছে দুদক 

আপডেট সময় : ১০:৪৫:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ জুন ২০২৩

৮ জুন ২০২৩ ইং, আজকের মেঘনা ডটকম, নিজস্ব প্রতিবেদক।।

দিনাজপুর জেলার হাকিমপুর উপজেলার আলিহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৪০ দিনের কর্মসৃজন কর্মসূচিতে ভুয়া শ্রমিকের নাম ব্যবহার করে টাকা উত্তোলন এবং ভিজিডি কার্ড প্রদানে ঘুস দাবির অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন( দুদক)। দিনাজপুর জেলা দুর্নীতি দমন কমিশনের( দুদক) এনফোর্স মেন্ট টিম অভিযান পরিচালনাকালে এ সত্যতা পায়। ৮ জুন (বৃহস্পতিবার ) দুর্নীতি দমন কমিশনের
(দুদক) জনসংযোগ দপ্তর সূত্রে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। সূত্র জানায়
চেয়ারম্যান, আলিহাট ইউনিয়ন পরিষদ, হাকিমপুর, দিনাজপুরের  বিরুদ্ধে ৪০ দিনের কর্মসৃজন কর্মসূচিতে ভুয়া শ্রমিকের নাম ব্যবহার করে টাকা উত্তোলন এবং ভিজিডি কার্ড প্রদানে ঘুস দাবির অভিযোগের প্রেক্ষিতে দুর্নীতি দমন কমিশন, জেলা কার্যালয় হতে একটি এনফোর্সমেন্ট অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানকালে দৈবচয়নের ভিত্তিতে কয়েকজন ভিজিডিং কার্ড এর সুবিধাভোগী ও শ্রমিকের সাথে কথা বলে  অভিযোগের প্রাথমিকভাবে সত্যতা পাওয়া যায়। অভিযানকালে অভিযোগ সংশ্লিষ্ট  প্রয়োজনীয়  রেকর্ডপত্র সংগ্রহ করা হয়।