ঢাকা ০২:৪৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ মে ২০২৪, ২৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিমানমন্ত্রী: পিলখানা হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে খালেদা জিয়া আগে থেকেই জানতেন

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ০৯:০১:৪৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ২২ বার পড়া হয়েছে

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী মুহাম্মদ ফারুক খান বলেছেন, “বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া আগে থেকেই জানতেন পিলখানা হত্যাকাণ্ড ঘটবে।”

রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে রাজধানীর বনানীতে সামরিক কবরস্থানে শহীদ সেনা কর্মকর্তাদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।
ফারুক খান বলেন, “দুটি মামলা হয়েছে, একটি হত্যার ও একটি বিস্ফোরক মামলা। বিচারের যে নিয়ম, সেই নিয়ম তো আমাদের পালন করতে হবে। সেটা না হলে আবার অন্য দিক থেকে ক্ষতিগ্রস্ত হব। আমি শুনেছি, বিচারের কার্যক্রম প্রায় শেষ পর্যায়ে আছে।”

তিনি বলেন, “যারা হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন, তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে এবং আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকেও আমরা দাবি করি, আমরা আশা করি যে, অতি দ্রুততার সঙ্গে এই মামলার মীমাংসা হবে এবং যারা দোষী তাদের কঠোরতম শাস্তি হবে।”

বিমানমন্ত্রী বলেন, “এর সঙ্গে যারা যারা জড়িত সবার শাস্তি হবে এবং এই ধরনের ঘটনা যাতে আর কখনো বাংলাদেশে না ঘটতে পারে তার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আগামীতেও নেওয়া হবে।”

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সাবেক এই সেনা কর্মকর্তা বলেন, “আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধ থেকে শুরু করে বঙ্গবন্ধু হত্যা; মাস্টার মাইন্ডদের ব্যাপারে খোঁজ-খবর নিচ্ছি আমরা। ঘটনার পেছনে যারা কুশীলব, কিছুটা তো আমরা জানি কারা ছিল।”

তিনি বলেন, “আমরা জানি, সেদিন ঘটনার কিছু পূর্বে বেগম জিয়ার বাসা থেকে একটি কালো রঙের গাড়ি কোনো প্রোটোকল না নিয়ে বেরিয়ে গেছে। এতে প্রমাণিত হয়, তিনি জানতেন ঘটনা ঘটবে।”

তিনি আরও বলেন, “এ ঘটনার বিচার যাতে সুষ্ঠুভাবে হয়, তার জন্য কাজ চলছে। যারা এর পেছনে আছে তাদের খুঁজে বের করা হবে।”

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

বিমানমন্ত্রী: পিলখানা হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে খালেদা জিয়া আগে থেকেই জানতেন

আপডেট সময় : ০৯:০১:৪৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী মুহাম্মদ ফারুক খান বলেছেন, “বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া আগে থেকেই জানতেন পিলখানা হত্যাকাণ্ড ঘটবে।”

রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে রাজধানীর বনানীতে সামরিক কবরস্থানে শহীদ সেনা কর্মকর্তাদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।
ফারুক খান বলেন, “দুটি মামলা হয়েছে, একটি হত্যার ও একটি বিস্ফোরক মামলা। বিচারের যে নিয়ম, সেই নিয়ম তো আমাদের পালন করতে হবে। সেটা না হলে আবার অন্য দিক থেকে ক্ষতিগ্রস্ত হব। আমি শুনেছি, বিচারের কার্যক্রম প্রায় শেষ পর্যায়ে আছে।”

তিনি বলেন, “যারা হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন, তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে এবং আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকেও আমরা দাবি করি, আমরা আশা করি যে, অতি দ্রুততার সঙ্গে এই মামলার মীমাংসা হবে এবং যারা দোষী তাদের কঠোরতম শাস্তি হবে।”

বিমানমন্ত্রী বলেন, “এর সঙ্গে যারা যারা জড়িত সবার শাস্তি হবে এবং এই ধরনের ঘটনা যাতে আর কখনো বাংলাদেশে না ঘটতে পারে তার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আগামীতেও নেওয়া হবে।”

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সাবেক এই সেনা কর্মকর্তা বলেন, “আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধ থেকে শুরু করে বঙ্গবন্ধু হত্যা; মাস্টার মাইন্ডদের ব্যাপারে খোঁজ-খবর নিচ্ছি আমরা। ঘটনার পেছনে যারা কুশীলব, কিছুটা তো আমরা জানি কারা ছিল।”

তিনি বলেন, “আমরা জানি, সেদিন ঘটনার কিছু পূর্বে বেগম জিয়ার বাসা থেকে একটি কালো রঙের গাড়ি কোনো প্রোটোকল না নিয়ে বেরিয়ে গেছে। এতে প্রমাণিত হয়, তিনি জানতেন ঘটনা ঘটবে।”

তিনি আরও বলেন, “এ ঘটনার বিচার যাতে সুষ্ঠুভাবে হয়, তার জন্য কাজ চলছে। যারা এর পেছনে আছে তাদের খুঁজে বের করা হবে।”